Loading…

ইন্টারনেট স্পীডে সমস্যা?

বাসার ভেতরের ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক কত সাবলীল ভাবে বাসার সব জায়গায় ইন্টারনেট প্রবাহ দিচ্ছে, সেটার উপর নির্ভর করে আপনার ইন্টারনেট স্পীড। আর এই ওয়াইফাই কতটা ভাল কাজ করবে, সেটা অন্য অনেক কিছুর উপরে নির্ভর করে।

তাহলে কী করবেন?

১. রাউটারটি বাসার মাঝামাঝি এলাকায়, মেঝে থেকে ৫ থেকে ৭ ফিট উঁচুতে রাখুন।

২. ১৫০০ স্কয়ার ফিটের বেশী বড় বাসা হলে, কিংবা খুব বেশী দরজা বা দেয়াল থাকলে, সাধারণ রাউটার ভাল কানেকশন বা ব্যান্ডউইথ দিতে পারেনা —— সেক্ষেত্রে আপনাকে মেশ ওয়াইফাই রাউটার সিস্টেম ব্যবহার করতে হতে পারে।

৩. বাসার ওয়াইফাইতে বেশী সংখ্যক ব্যবহারকারী বা ডিভাইস যুক্ত হলে ইন্টারনেট স্পীড কমে যায়।

৪. হয়তো আপনি ডিভাইস ব্যবহার করছেন না, কিন্তু ডিভাইসের প্রোগ্রাম বা এ্যাপ কানেকটেড থাকে; এ'ক্ষেত্রে সেটা বন্ধ করে দিন।

৫. মাঝে মধ্যে রাউটারের সুইচ অফ করে ১০ সেকেন্ড পর আবার অন করবেন — এতে রাউটার রিফ্রেশ হয়ে কাজ করবে।

আসলে, আপনার বাসায় ক্যাবলের মাধ্যমে যে ইন্টারনেট পৌঁছায়, সেটাতে বেশির ভাগ সময়েই পূর্ণ ব্যান্ডউইথ থাকে; কিন্তু উপরে দেয়া বিভিন্ন কারণে বাসার ভেতরে আপনি মনমতো ইন্টারনেট স্পীড নাও পেতে পারেন।

বাসায় ইন্টারনেট কানেকশন ঠিক করতে কী কী করতে হবে, এইটা জানতে যেকোন সময় ফোন করুন ১৬৩৩৫ বা ০৯৬৭৮১২৩১২৩ নম্বরে আমাদের ইঞ্জিনিয়ার পৌঁছে যাবে আপনাদের বাসায়!

Link3 সর্বাধুনিক ফাইবার অপটিকাল ক্যাবলের মাধ্যমে আপনার বাসায় ইন্টারনেট পৌঁছে দেয় (অন্যান্যদের মতো সনাতনীকো—এক্সিয়েল ক্যাবল দিয়ে নয়); ফলে ব্যান্ড উইথ এখানে সবচেয়ে বেশী এবং সাবলীল পাবেন।

WiFi এ্যানালাইজার অ্যাপ ব্যবহার করে সঠিক
SSID-তে কানেক্ট করুন!

প্লে—স্টোর বা অ্যাপ—স্টোর থেকে ডাউনলোড এবং ইন্সটল করুন ওয়াইফাই এ্যানালাইজার আ্যাপ। যেমন, WiFi Analyzer, WiFi Router Master, WiFi Analyzer–WiFi Signal Meter, etc.

WiFi এ্যানালাইজার অ্যাপ ওপেন করে চেক করুন। আপনার রাউটার থেকে আপনার ডিভাইসের দূরত্ব, ফ্রিকোয়েন্সি ও রেটিং।

এরপর রেটিং দেখে বা অ্যাপ-এ দেখানো সাজেশন দেখে সঠিক SSID-তে ডিভাইসটি কানেক্ট করুন।

আরোও জানতে Link3 সাপোর্ট এ যোগাযোগ করুন।

বাচ্চাদের অনলাইনে রাখুন নিরাপদ!

আপনি খুব সহজেই রাউটারের প্যারেন্টাইল কন্ট্রোলের মাধ্যমে আপনার বাচ্চা কোন কোন কন্টেন্ট—এ অ্যাকসেস পাবে তা নির্ধারণ করতে পারবেন।

  • প্রথমে রাউটারে লগইন করুন, লগইন করতে ভিজিট করুন http://192.168.0.1/ বা রাউটার এর পিছনে নির্দেশনা দেখুন।
  • এরপর প্যারেন্টাল কন্ট্রোল সিলেক্ট করুন।
  • প্যারেন্টাল কন্ট্রোল থেকে আপনার বাচ্চার ডিভাইসটি অ্যাডকরুন।
  • এরপর প্রয়োজনীয় ওয়েবসাইট অ্যাড করুন এবং টাইম ও দিন সেট করে দিন।
  • আপনার বাচ্চা যেন কোন VPN সফটওয়্যার বা অ্যাপ ব্যবহার না করে সেদিকে নজর রাখুন।
  • কিভাবে প্যারেন্টাল কন্ট্রোল ব্যবহার করবেন, তা জানতে ভিজিট করুন www.link3.net/pc

সাইবার সিকিউরিটি সচেতনতা

  • শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন যেখানে বড় হাতের, ছোট হাতের, নম্বর ও স্পেশাল ক্যারেক্টার থাকে এবং তা কখনোই কারো সাথে শেয়ার করবেন না।
  • আপনার অনলাইন অ্যাকাউন্ট—এ যেকোনো পরিবর্তন নিয়মিত নজর রাখুন।
  • যেকোনো অনলাইন অ্যাকাউন্ট—এর জন্য দ্বিমুখী বা মাল্টি—ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন সার্ভিস ব্যবহার করুন। যাতে পাসওয়ার্ড চুরি হয়ে গেলেও অ্যাকাউন্ট—এ অন্য কেউ সহজেই অ্যাকসেস না পায়। এক্ষেত্রে আপনার মোবাইল—এ ওয়ান—টাইম—পাসওয়ার্ড (OTP) অন রাখুন।
  • কোন অজানা ইউ আর এল (URL) অথবা সন্দেহজনক ইমেইল অ্যাটাচমেন্টে ক্লিক করা থেকে বিরত থাকুন।
  • অজানা কোন ব্যক্তির সাথে কোনো ব্যক্তিগত তথ্য অথবা পিন কোড কখনোই শেয়ার করবেন না।